শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ০৫:০৯ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ঈদকে সামনে রেখে সাড়ে ৫শত দরিদ্র মানুষের মাঝে শাড়ী লুঙ্গি বিতরণ করলেন রুপপুরের বকুল যৌন উত্তেজক সিরাপ তৈরির কারখানায় অভিযান, ৫ লাখ টাকা জরিমানা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে অভিনন্দন জানিয়ে শেখ হাসিনার চিঠি জয়পুরহাটে গণপরিবহন চালুর দাবিতে শ্রমিকদের ০৩ দফা কর্মসূচী নাটোরে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ন্যায্যমূল্যে তরমুজ বিক্রির উদ্বোধন আমতলীতে সরকারী সম্পত্তি দখলে মেতে ‍উঠছে ভূমিদস্যুরা বেপরোয়া  পিকআপের ধাক্কায় প্রাণ গেলো  অটোভ্যান চালকের ৩দফা দাবিতে পাবনা জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের বিক্ষোভ মিছিল পালিত দুমকিতে অগ্নিকান্ডে ৩টি পরিবার নিঃস্ব নাটোরে শ্রমিক দিবস পালিত
ঘোষণা :

জয়পুরহাট জেলার উৎপাদিত আলু রপ্তানি হচ্ছে বিদেশে!

জয়পরহাট প্রতিনিধি/ মোঃ জহুরুল ইসলামঃ- জয়পুরহাটের আলু অত্যন্ত উন্নত মানের হওয়ায় বিভিন্ন জেলায় সরবরাহ করার পাশাপাশি দেশের গন্ডি পেরিয়ে বিদেশের মাটিতে বিশেষ করে সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ড, জাপান, কুয়েত, ইন্দোনেশিয়া, সৌদি আরব, মালেশিয়া, নেপাল রাশিয়া ও দুবাইয়ে আলু রপ্তানি করা হচ্ছে ।

জয়পুরহাট জেলায় সম্প্রতি আলু উত্তোলন শেষ হয়েছে। বরেন্দ্র অঞ্চল হিসেবে পরিচিত জেলায় লক্ষ্য মাত্রার চেয়ে অধিক পরিমাণ জমিতে আলুর চাষ হয়েছে। জয়পুরহাটের আলু রপ্তানি করা হচ্ছে দেশের চাহিদা মিটিয়ে বহির্বিশ্বের দশটি দেশে। অন্যান্য বারের তুলনায় এবার আলুর দাম ভালো পাওয়ায় এই জেলার কৃষকরা অনেক বেশ খুশি।

জয়পুরহাটের কালাই উপজেলার আলু রপ্তানি কারক বেসরকারী প্রতিষ্ঠান “সূচি এন্টারপ্রাইজের” স্বত্বাধিকারী মোঃ সুজাউল ইসলাম সুজা জানান, আমি গত ১০ বছর যাবত বহির্বিশ্বের ৮টি দেশে আলু রপ্তানি করে আসছি। আমি আলু রপ্তানি করতে প্রথমে জমি নির্বাচন করি, পরে সেই জমিতে স্থানীয় কৃষি বিভাগের তত্ত্বাবধানে আলু রোগ বালাই মুক্ত করে ফলন নিশ্চিত করার পর আলু পরিপক্ক হলে তা তোলা হয়। এক পর্যায়ে বাছাইয়ের পর গ্রেটিং করে ৫কেজি ১০কেজি ২০কেজি প্যাকেট করে রপ্তানির জন্য প্রস্তুত করে প্রক্রিয়াজাতের কাজ শেষ হলে তা ঢাকায় রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠানে পাঠানো হয়। সেখান থেকে বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশে রপ্তানি করা হয়। এই কাজে কৃষি বিভাগের ছাড়পত্র পেতে অনেক ভোগান্তির শিকার হতে হয় ফলে অনেকেই অনুমোদন ছাড়াই অবৈধভাবে বিদেশে আলু রপ্তানি করছে। তিনি আরো বলেন আমার কোম্পানিতে বর্তমানে শতাধিক শ্রমিক কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করছে।

জয়পুরহাট কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালকস স.ম মেফতাহুল বারি জানান, জেলায় আলু চাষ সফল করতে স্থানীয় কৃষকদের মাঠ পর্যায়ে প্রশিক্ষণসহ উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তারা সার্বক্ষণিক মনিটরিং তদারকি ও কৃষকদের পরামর্শ প্রদান করেছে। বিএডিসি’র পক্ষ থেকে কৃষকদের মাঝে উন্নত জাতের আলু বীজ সরবরাহ করা হয়েছে। দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত অনেক পাইকারী ক্রেতারা জমি থেকেই আলু কিনে নিয়ে গেছে। এবার বাজারেও আলু প্রকার ভেদে প্রায় ১৮ থেকে ২০টাকা পর্যন্ত কেজি বিক্রি হওয়ায় কৃষকরা বেশ খুশি। অপরদিকে দেশের চাহিদা মিটিয়ে বিদেশের মাটিতেও চলে যাচ্ছে আমাদের আলু তারা বাছাইকৃত প্রতি কেজি আলু কিনছে প্রায় ২৮-৩০ টাকা দরে।

জয়পুরহাট জেলা বর্তমানে আলু উৎপাদনে উৎকৃষ্ট জেলা হিসেবে পরিচিত। চলতি ২০২০-২১ মৌসুমে জেলায় ৪১হাজার ৩১৫ হেক্টর জমিতে আলুর চাষ হয়েছে। আলু উৎপাদন হয়েছে ৯ লাখ ৬০হাজার মেট্রিক টন। গত মৌসুমে আলু উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল ৩৮ হাজার ৫০০ হেক্টর জমিতে। আলু উৎপাদন হয়েছিল ৮ লাখ ৩৫ হাজার মেট্রিকটন। ফলন ভালো হওয়ায় স্থানীয় কৃষকরা গ্যানোলা, মিউজিকা, ডায়মন্ড, এস্টোরিকস, কার্ডিনাল, রোজেটা ও দেশি জাতের আলু বেশি চাষ করে থাকে। জেলার প্রায় ১৫ টি কোল্ড ষ্টোরেজে প্রায় ১লাখ ৮৫ হাজার মেট্রিক টন আলু সংরক্ষণ করা হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমরা

Archives

error: Content is protected !!