বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:২৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ঘোষণা :

ছেলের নির্যাতন থেকে বাঁচতে চান বাবা

ছেলের নির্যাতন ও হয়রানির হাত থেকে রেহাই পেতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ চেয়েছেন অসহায় এক বৃদ্ধ বাবা। বুধবার দুপুরে বরিশাল রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সংবাদ সম্মেলনে এ আকুতি জানান বরিশাল সদর উপজেলার চরকাউয়ার নয়ানী গ্রামের মো. আনসার আলী।

লিখিত বক্তব্যে তিনি জানান, তার মেজ ছেলে আবুল কাশেম নান্নু একাধিকবারে প্রায় ১০ লাখ টাকার গাছ ও বাঁশ বিক্রি করেছে। এ কাজে তিনি যতবার বাধা দিয়েছেন ততবারই তাকে মারধর করেছে নান্নু। এ নিয়ে ২০১৬ সালের জানুয়ারিতে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে সালিশও হয়। তবে ওই সালিশের রায় নান্নু মেনে নেননি।

আনসার আলী বলেন, ২০১৭ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি টাকা চেয়ে না পেয়ে নান্নু আমাকে বেদম মারধর করে এবং জোর করে একটি গরু নিয়ে যায়। তখন আদালতে একটি মামলা করি। ওই মামলায় গ্রেপ্তার হওয়ার পর জামিনে ছাড়া পেয়ে নান্নু আমাকে আদালত চত্বরেই হুমকি দেয়। ওই ঘটনায় তখন কোতোয়ালি মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরি করি।

তিনি বলেন, আমার দায়ের করা মামলায় সাক্ষ্য দেওয়ায় দেলোয়ার মুন্সী নামে একজনকে মারধরও করেছে নান্নু।

আনসার আলী বলেন, জাল দলিল দিয়ে মালিকানা দাবি করে নান্নু আমার কিছু জমি জোর করে চাষাবাদ করছে। চাষাবাদে বাধা দিলে আমাকে বসতঘর থেকে নামিয়ে দেয় নান্নু। তখন থেকে আমি বড় ছেলে আলাউদ্দিন বাবুলের ঘরে থাকছি। ২০১৮ সালের ২৫ ডিসেম্বর জাল দলিলের জোরে নান্নু লোকজন নিয়ে ২৮৪ শতাংশ জমির ধান ও একটি রেইনট্রি গাছ কেটে নেয়।

তিনি আরও বলেন, সবশেষ চলতি বছরের ১ জানুয়ারি নান্নু ও তার লোকজন তিন একর জমির ধান কেটে নিলে বাধা দেওয়ায় আমাকে পিটিয়ে আহত করে সে। পরে স্থানীয়রা আমাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। ওই ঘটনায় বড় ছেলে বাবুল বাদী হয়ে নান্নুসহ ছয়জনকে আসামি করে থানায় মামলা করেছে।



All Bangla Newspaper
ফেসবুকে আমরা

error: Content is protected !!