বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৪০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ঘোষণা :

গলাচিপায় ৯৯৯ কল করে অবরুদ্ধ ২নারী উদ্ধার,তুচ্ছ ঘটনায় সংঘর্ষ ৩নারী আহত

পটুয়াখালী প্রতিনিধি:-পটুয়াখালীর গলাচিপায় তুচ্ছ ঘটনায় সংর্ঘষে দু’পক্ষের ৩নারী আহত হয়েছে। আহত ২নারীকে অবরুদ্ধ করে রাখা হলে ৯৯৯ কল করলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে অবরুদ্ধ নারীদের উদ্ধার করে চিকিৎসার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলার গোলখালী ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের গোলখালী গ্রামে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রজানায়, উপজেলার গোলখালী ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডে গোলখালী গ্রামের মিলন মাতুব্বরের সাথে প্রতিবেশী আবু সাইদ মাতুব্বর ও মহসিন মাতুব্বরের জমিজমা নিয়ে দীর্ঘ দিন যাবত বিরোধ চলছিল। মঙ্গলবার বিকেলে বাড়ির পাশে টিউবয়েলে মিরন মতুব্বরের স্ত্রী শিরিন সুলতানা পানি আনতে গেলে মহাসিন মাতুব্বরের স্ত্রী আনোয়ারা বেগমর কথা কাটাকাটি হয়। কথা কাটাকাটির এক পর্যায় আবু সাইদ মাতুব্বর (৪৫), রাকিব মাতুব্বর (২৫) ও আনোয়ারা বেগম (৪২) শিরিন সুলতানা (৪২) কে বেধরক মারধর করে। মারধর শেষে শিরিন ও তানজিলাকে পুনরায় অভিয্ক্তু তিনজন রামদা, লাঠি সোটা নিয়ে অবরুদ্ধ করে রাখে। এসময় শিরিনের ডাক চিৎকারে মেয়ে তুলারাম কলেজের বি,এ(পাস) ২বর্ষের ছাত্রী তানজিলা আক্তার (২২) এগিয়ে এলে তাকেও বেধরক মারধর করা হয়। এসময় আহত শিরিন ও তানজিলাকে ঘরের মধ্যে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়। পরের তানজিলা ৯৯৯ নম্বরে কল করলে গলাচিপা থানার এস, আই মোঃ নিজাম উদ্দিন উদ্ধার করে গলাচিপা আসতে বলে। পথি মধ্যে আসার সময় পুনরায় রাস্তা অবরুদ্ধ করে তাদেরকে রাকিব ও মহসিন বেধরক মারধর করে গুরত্বর জখম করে। শিরিন ও তানজিলার ডাকচিৎকার শুনে স্থানীয় লোকজন তাদের ঘটনাস্থল থেকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

অপরদিকে আহত আবু সাইদ মাতুব্বরের স্ত্রী আনোয়ারা বেগম জানান, শিরিন ও তার মেয়ে তানজিলা আমাকে বেধরক মারধর করে। গলাচিপা থানার অফিসার ইন চার্জ শওকত অনোয়ার জানান, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।



All Bangla Newspaper
ফেসবুকে আমরা

error: Content is protected !!