মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১২:৩৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
পটুয়াখালীতে প্রগতি লেখক সংঘের কবি আড্ডা অনুষ্ঠিত গলাচিপায় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আহসানুল হক তুহিন পুনরায় নির্বাচিত খালেদা জিয়াকে স্লো পয়জনিং বিএনপির লোকেরাই করতে পারে : কাদের নৌকার বিপক্ষে একটা ভোট গেলে লাশ পড়বে ৫টা, ছাত্রলীগ নেতার হুমকি জয়পুরহাট-সহ উত্তরের জেলা গুলোতে জেঁকে বসেছে শীত ও ঘন কুয়াশা! নওগাঁয় ভোটের মাঠে চেয়ারম্যান পদে পঞ্চমুখী লড়াই  ডিমলা উপজেলার কৃষকরা ভুট্টা চাষে আগ্রহী  গলাচিপা পৌরসভা নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীর সমর্থনে কেন্দ্রীয় সেচ্ছাসেবক লীগের জনসংযোগ।  লক্ষ্মীপুরে বাবা চেয়ারম্যান, চার ভাইবোন হতে চান মেম্বার ‘মু‌জিব কোট খুইল্লা ও‌সিরে গুতাই‌ছি’
ঘোষণা :

নেত্রকোনায় মেম্বার কর্তৃক ধর্ষণের শিকার হয়ে ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেছে শেফালী

বিচার না পেয়ে আমার মেয়েটি মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলে

নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় ইউপি মেম্বার কর্তৃক ধর্ষণের শিকার হয়ে বিচার না পেয়ে শেফালী ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেন। তখন থেকেই শেফালী শেকলবন্দি।

উপজেলার বলাইশিমুল ইউনিয়নের ভরাপাড়া গ্রামে কেন্দুয়া-নেত্রকোনা সড়কের পার্শ্বে সরকারি জায়গায় ছোট্ট একটি কাঁচাঘরে বসবাস করেন হতদরিদ্র সখিনা বেগম। বাড়ির পাশে গাছের সঙ্গে শেকলবন্দি করে রাখা হয়েছে শেফালীকে। তাকে কিছু জিজ্ঞাসা করলেই রাগান্বিত হয়ে আবোল-তাবোল কথা বলেন।

শেফালীর মা হতদরিদ্র সখিনা বেগম জানান, ধর্ষণের ঘটনার পরই গ্রাম্য মাতবররা সালিশ বৈঠক করে আট হাজার টাকা দিয়ে মীমাংসা করে দেন। ফলে বিচার না পেয়ে আমার মেয়েটি মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলে। অর্থাভাবে মেয়েটির সুচিকিৎসা করাতে পারিনি। মাথার যন্ত্রণার কারণে তাকে শেকলবন্দি করে রাখা হয়েছে।

তিনি বলেন, আমি পাড়া-মহল্লায় ভিক্ষা করি আর মানুষের বাড়িতে কাজ করে সংসার চালাই। সুচিকিৎসার মাধ্যমে আমার মেয়েটিকে সুস্থ করার জন্য বিত্তশালী ও মানবিক মানুষের সাহায্য প্রার্থনা করছি।

সচেতন মানুষের সহযোগিতায় গত ২৪ সেপ্টেম্বর কেন্দুয়া থানায় ইউপি মেম্বার ও সহায়তাকারী মহিলা ললিতাকে আসামি করে মামলা করেন সখিনা বেগম। গত ২৯ অক্টোবর নওপাড়া ইউপির ২নং ওয়ার্ডের মেম্বার হানিফকে পুলিশ গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠায়।

বাংলাদেশ আইন সহায়তা কেন্দ্র (বাসক) কেন্দুয়া শাখার সভাপতি শাহ আলী তৌফিক রিপন যুগান্তরকে জানান, এখন পর্যন্ত কোনো নারী সংগঠন, মানবাধিকার সংগঠন বা কোনো সংস্থা এ  ভারসাম্যহীন মেয়েটির পাশে এসে দাঁড়ায়নি।

তবে কেন্দুয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মইনউদ্দিন খন্দকার আমার মাধ্যমে মেয়েটির খোঁজখবর নিয়েছেন এবং চিকিৎসার জন্য সরকারি সহায়তা প্রদানের আশ্বাস দেন। তিনি বৃহস্পতিবার শেকলবন্দি মেয়েটিকে ২টি কম্বল পৌঁছে দিয়েছেন।



All Bangla Newspaper
ফেসবুকে আমরা
error: Content is protected !!