শনিবার, ০৮ মে ২০২১, ০৩:৪৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ঈদকে সামনে রেখে সাড়ে ৫শত দরিদ্র মানুষের মাঝে শাড়ী লুঙ্গি বিতরণ করলেন রুপপুরের বকুল যৌন উত্তেজক সিরাপ তৈরির কারখানায় অভিযান, ৫ লাখ টাকা জরিমানা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে অভিনন্দন জানিয়ে শেখ হাসিনার চিঠি জয়পুরহাটে গণপরিবহন চালুর দাবিতে শ্রমিকদের ০৩ দফা কর্মসূচী নাটোরে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ন্যায্যমূল্যে তরমুজ বিক্রির উদ্বোধন আমতলীতে সরকারী সম্পত্তি দখলে মেতে ‍উঠছে ভূমিদস্যুরা বেপরোয়া  পিকআপের ধাক্কায় প্রাণ গেলো  অটোভ্যান চালকের ৩দফা দাবিতে পাবনা জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের বিক্ষোভ মিছিল পালিত দুমকিতে অগ্নিকান্ডে ৩টি পরিবার নিঃস্ব নাটোরে শ্রমিক দিবস পালিত
ঘোষণা :

লোহাগড়ায় সংঘর্ষ দুজন পুলিশ কর্মকর্তা হামলার শিকার

নড়াইলের লোহাগড়ায় সংঘর্ষ সামাল দিতে গিয়ে দুজন পুলিশ কর্মকর্তা হামলার শিকার হয়েছেন। এসময় দুর্বৃত্তরা এক পুলিশ কর্মকর্তার পিস্তল ছিনিয়ে নিয়ে যায়। দুই ঘণ্টা পর পুলিশ খোয়া যাওয়া ওই পিস্তল উদ্ধার করে।

বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, কুমড়ি-লুটিয়া-মাউলী এলাকায় কুমড়ি পূর্বপাড়ার সরদার ওহিদুর রহমান নেতৃত্বাধীন জালাল মোল্যা, টুকু কটা, ইসলাম মোল্যা গ্রুপের সাথে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে চরমাউলি গ্রামের রোকন উদ্দিন মোল্যা ও লুটিয়ার ফিরোজ মেম্বরের নেতৃত্বাধীন গ্রুপের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল।

সরদার ওহিদুর রহমান নেতৃত্বাধীন গ্রুপের লোকজন অসহায় লোকদের ওপর জুলুম-নির্যাতন করতো। ওই গ্রুপের লোকদের অত্যাচার থেকে বাঁচতে চরমাউলী, মাটিয়াডাঙ্গা, খালচর, গাজিপুর, লুটিয়া সহ পাঁচ গ্রামের লোক সংঘবদ্ধ হয়ে পল্লী নামে একটি সংগঠন গড়ে তোলে।

জানা যায়, পল্লী গ্রুপের সদস্য চরমাউলি গ্রামের ইকবাল ও রব্বানী বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বিল থেকে ধান কেটে বাড়ি ফিরছিলেন। তাদের দুজনকে মারার জন্য সরদার ওহিদুর রহমান নেতৃত্বাধীন গ্রুপের লোকজন রামদা, লাঠিসহ ধারালো অস্ত্র নিয়ে বিলের মাঝে ঢোকে।

গ্রামের মহিলারা বিষয়টি টের পেয়ে চিৎকার শুরু করলে পল্লী গ্রুপের সদস্যরাও পাল্টা জবাব দিতে ছুটে আসে। দুপক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়।

ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার খবর পেয়ে লোহাগড়া থানার এ এস আই মীর আলমগীর হোসেন এবং এ এস আই মিকাইল কুমড়ি পূর্বপাড়াস্থ টিকেরডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন মাঠে প্রবেশ করেন। এ এস আই মীর আলমগীর হোসেন এসময় সরদার ওহিদুর রহমান গ্রুপের সনি সরদার কে আটক করেন।

সরদার ওহিদুর রহমান গ্রুপের পলাশ সরদার, আজগার মোল্যা, সাদ্দাম কটা, সাজ্জাদ কটা, আজাদ কটাসহ প্রায় ২৫/৩০ জন এ এস আই আলমগীরকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ও পিটিয়ে জখম করে সনি সরদারকে ছিনিয়ে নেয়। এসময় এ এস আই মিকাইলও মারপিটের শিকার হন।

দুর্বৃত্তরা মারপিটের সময় এ এস আই মীর আলমগীর হোসেন এর সরকারি পিস্তল কেড়ে নিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা ওই দুই পুলিশ কর্মকর্তাকে উদ্ধার করে লোহাগড়া হাসপাতালে ভর্তি করে। খোয়া যাওয়ার দুই ঘণ্টা পর পুলিশ মাউলী সড়কের পাশ থেকে ওই পিস্তল উদ্ধার করে।

লোহাগড়া থানার ওসি সৈয়দ আশিকুর রহমান বলেন, সরদার ওহিদুর রহমানের গ্রুপ পুলিশের উপর হামলা চালিয়ে অস্ত্র ছিনিয়ে নেয়। ছিনিয়ে নেওয়া অস্ত্র উদ্ধার করেছি। দোষীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নড়াইলের পুলিশ সুপার প্রবীর কুমার রায় (পিপিএম) ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


ফেসবুকে আমরা

Archives

error: Content is protected !!