মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ০১:১৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
পটুয়াখালীতে প্রগতি লেখক সংঘের কবি আড্ডা অনুষ্ঠিত গলাচিপায় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আহসানুল হক তুহিন পুনরায় নির্বাচিত খালেদা জিয়াকে স্লো পয়জনিং বিএনপির লোকেরাই করতে পারে : কাদের নৌকার বিপক্ষে একটা ভোট গেলে লাশ পড়বে ৫টা, ছাত্রলীগ নেতার হুমকি জয়পুরহাট-সহ উত্তরের জেলা গুলোতে জেঁকে বসেছে শীত ও ঘন কুয়াশা! নওগাঁয় ভোটের মাঠে চেয়ারম্যান পদে পঞ্চমুখী লড়াই  ডিমলা উপজেলার কৃষকরা ভুট্টা চাষে আগ্রহী  গলাচিপা পৌরসভা নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীর সমর্থনে কেন্দ্রীয় সেচ্ছাসেবক লীগের জনসংযোগ।  লক্ষ্মীপুরে বাবা চেয়ারম্যান, চার ভাইবোন হতে চান মেম্বার ‘মু‌জিব কোট খুইল্লা ও‌সিরে গুতাই‌ছি’
ঘোষণা :

বদলগাছীতে জমি খারিজ নিয়ে সাধারণ মানুষের ভোগান্তি চরমে

বদলগাছীতে জমি খারিজ নিয়ে সাধারণ মানুষের ভোগান্তি চরমে

বদলগাছী(নওগাঁ) সংবাদদাতা:- নওগাঁর বদলগাছী উপজেলা ভূমি অফিসে জমি খারিজ না হওয়ায় ভোগান্তির মধ্যে পড়েছে সাধারণ মানুষ। জানা যায় উপজেলা সহকারী কমিশনার  (ভূমি) দীর্ঘদিন ধরে না থাকায় খারিজ নিয়ে জটিলতার সৃষ্টি হয়ে পড়েছে।উপজেলা ভূমি অফিস সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা প্রায় ৭শ থেকে ৮শ’ খারিজের অবেদন ও ফাইল জমা হয়ে পড়ে আছে। উপজেলা ভূমি অফিসে দেখা যায় সাধারণ মানুষের নানা ভোগান্তি।
একাধিক  ভুক্তভোগীর  ভাষ্যে জানা যায়, অনেকে মেয়ের বিয়ে দেওয়ার জন্য জমি বিক্রয় করতে চাইলে খারিজ না হওয়ায় কেউ নিতে চায় না। আবার অনেকেই চিকিৎসার জন্য জমি বিক্রয় করার চেষ্টা করলে তাদেরও একই অবস্থা দাঁড়িয়েছে।
উপজেলা ভূমি অফিসের সহকারী গোলাম মোরশেদ বলেন, প্রতি মাসে ২শ’ অধিক  খারিজের জন্য ফাইল জমা হয়। বর্তমান ইউ এনও স্যারের নির্দেশে আমরা কোন ফাইল জমা নিচ্ছি না।মজিবর রহমান বলেন, সাধারণ মানুষের আকুতি মিনতি দেখে ইউএনও স্যারের কাছে বলতে গেলে আমাদেরকে বিভিন্ন ধরনের কথা শুনতে হয়।
তিনি আরও বলেন, যে উপজেলাতে ভূমি কর্মকর্তা থাকেনা সেখানকার উপজেলা নির্বাহী অফিসার খারিজের কাজকর্ম করে কিন্তু এখানে কাজ না করায় লক্ষ লক্ষ টাকার রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার। উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি সুমন জিহাদী গত ১ আগস্ট বদলী হয়। গত ১৪ অক্টোবর চৌধুরী মোস্তাফিজুর রহমান যোগদান করে কাজ শুরু না হতেই কয়েক দিন পর ট্রেনিং নেওয়ার জন্য গত ২৮ অক্টোবর চলে যাওয়ায় বর্তমান উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি  পদটিতে  ঐ কর্মকর্তার ট্রেনিং জনিত কারণে অনুপস্থিতিতে খারিজ নিয়ে সাধারন মানুষের মাঝে চরম ভোগান্তিতে পড়েছে।
উপজেলা দলিল লেখক সমিতির সভাপতি মোকলেছার রহমান বলেন, প্রতি মাসে ৬-৭শ’ দলিল   রেজিস্ট্রি   হয়।  এসিল্যান্ড  না থাকায় ১শ’ দলিল ও হচ্ছে না। আমি একাধীক বার উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে বলেছি তিনি খারিজের কোন কাজ করবেনা বলে জানিয়েছে। দলিল রেজিস্ট্রির কাজ না হওয়ায় সাধারণ মানুষের ভোগান্তির শেষ নেই।
উপজেলা  সাব রেজিস্ট্রার  মাসুদ পারভেজ বলেন, এমনিতে এ সময়ে রেজিস্ট্রি কম হয় তা ছাড়া অনেকে খারিজ করতে পারছে না এজন্যই দলিল রেজিস্ট্রি তুলনা মূলক অনেক কম হচ্ছে।
বদলগাছী উপজেলা নির্বাহী অফিসার আলপনা ইয়াসমিন বলেন, বদলগাছী উপজেলা সহকারী কমিশনার মোস্তাফিজুর রহমান যোগদানের পর ৫ মাসের জন্য ট্রেনিং নেওয়ার জন্য গিয়েছেন। তিনি আরও বলেন, এর মধ্যে কাউকে দায়িত্ব না দেওয়া হলে আমি সামনে মাস থেকে নিজেই খারিজের কাজ শুরু করব।



All Bangla Newspaper
ফেসবুকে আমরা
error: Content is protected !!