মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১১:১৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
পটুয়াখালীতে প্রগতি লেখক সংঘের কবি আড্ডা অনুষ্ঠিত গলাচিপায় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আহসানুল হক তুহিন পুনরায় নির্বাচিত খালেদা জিয়াকে স্লো পয়জনিং বিএনপির লোকেরাই করতে পারে : কাদের নৌকার বিপক্ষে একটা ভোট গেলে লাশ পড়বে ৫টা, ছাত্রলীগ নেতার হুমকি জয়পুরহাট-সহ উত্তরের জেলা গুলোতে জেঁকে বসেছে শীত ও ঘন কুয়াশা! নওগাঁয় ভোটের মাঠে চেয়ারম্যান পদে পঞ্চমুখী লড়াই  ডিমলা উপজেলার কৃষকরা ভুট্টা চাষে আগ্রহী  গলাচিপা পৌরসভা নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীর সমর্থনে কেন্দ্রীয় সেচ্ছাসেবক লীগের জনসংযোগ।  লক্ষ্মীপুরে বাবা চেয়ারম্যান, চার ভাইবোন হতে চান মেম্বার ‘মু‌জিব কোট খুইল্লা ও‌সিরে গুতাই‌ছি’
ঘোষণা :

ভ্যাটিক্যান ভিলেজ অব মির্জাগঞ্জঃ নির্বাচনী হালচাল

মল্লিক মাকসুদ আহমেদ বায়েজীদ,মির্জাগঞ্জ, পটুয়াখালী::- ভ্যাটিক্যান সিটি পৃথিবীর সবচেয়ে ছোট্ট একটি স্বাধীন দেশ।যার আয়তন মাত্র ৫২১ একর।আর জনসংখ্যা ৮৪০ জন। ইতালীর রাজধানী শহর রোমের মধ্যে পাঁচিল দিয়ে ঘেরা এই রাস্ট্রটির রয়েছে নিজস্ব সেনাবাহিনী, নিজস্ব মুদ্রা,একটি স্বাধীন রাস্ট্রের সামগ্রিক সুযোগ সুবিধা এবং সারা বিশ্বে স্বাতন্ত্র্য গ্রহনযোগ্যতা।
পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ উপজেলার মেন্দিয়াবাদ-হাজীখালী এবং সাতবাড়ীয়া তিনটি ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র গ্রাম নিয়ে গঠিত ৯ নম্বর ওয়ার্ড।যে ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা মাত্র ৬৯৫ জন যা উপজেলার অন্য ইউনিয়নের যেকোনো ওয়ার্ডের তূলনায় অানুমানিক এক-তৃতীয়াংশ বা চতুর্থাংশেরও কম।বলা বাহুল্য ভ্যাটিক্যান সিটির যেমন বৃহৎ রোম শহরের মধ্যবর্তী স্থানে অবস্থান তেমনি এই ওয়ার্ডটির অবস্থান রয়েছে বৃহদাকায় দানব ক্ষুধার্ত পায়রা নদীর গর্ভাশায়।ওয়ার্ডটির দৈর্ঘ্য পূর্বতূলনায় কিছুটা ঠিক ঠাক থাকলেও প্রশ্বস্ততা নেই বললেই চলে।এক সময় এর দৈঘ্য ছিলো প্রায় তিন কিলোমিটার আর প্রশ্বস্ত এক কিলোমিটারের মতো।মেন্দিয়াবাদ গ্রামটি এতোটা পায়রা ঘেঁষা যে খরস্রোতা পানির ঘঁষাঘঁষিতে গ্রামের মাটি -ঘাঁটী-ভিটি-বসতি নদীর ভূগর্ভস্থে বিলীন প্রায়।মেন্দিয়াবাদ গ্রামের পূর্ব দিকে মঠবাড়ীয়া নামক একটি গ্রাম ছিলো যা পায়রা নদী গিলে ফেলেছে কয়েকযুগ আগেই।আর যাইহোক ভ্যাটিক্যান সিটির মতো  স্বাতন্ত্রতা অবশ্যই রয়েছে এখানকার জনগনের।রয়েছে নিজস্ব রুচি,চাহিদা,পছন্দ মাফিক প্রতি পাঁচ বছরান্তর প্রতিনিধি নির্ধারন করার।ভোটার সংখ্যা কম হলেও চার চারজন বাঘা বাঘা যুবক প্রতিদ্বন্ধিতা করেছেন এই ভ্যাটিক্যান ভিলেজের প্রতিনিধি হবার প্রত্যাশ্যায়।এ মাসের ২৮ তারিখে তৃতীয় দফার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন।৪ নম্বর দেউলি সুবিদখালী ইউনিয়নে তিন জন চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। যারমধ্যে নৌকার কান্ডারী সুবিদখালীর ঐতিহ্যবাহী সম্ভ্রান্ত খান পরিবারের মোঃআনোয়ার হোসেন খাঁন,আনারসে রসক বর্তমান চেয়ারম্যান আঃআজিজ হাওলাদার এবং শীতের মাঝে গরমের হাতপাখা আব্দুস সাত্তার মৃধা।দিন যতো গড়াচ্ছে জমে উঠছে নির্বাচনী উৎসব।ফোরেক্স ট্রেডিংয়ের মতো ঘন্টা, মিনিট, সেকেন্ড,পালসে ওঠানামা করছে নির্বাচনী হালচাল।এই বুঝি অমুক জিতে গেলো তমুক ঠকে গেলো।অমুক ভালো লোক তমুক কালো লোক।নতুন বধূ বা জামাতার মতো মস্তক থেকে পায়ের গোঁড়ালি পর্যন্ত হিসেব করা হচ্ছে দীক্ষা,প্রশিক্ষা,কলেবর,চেহারা,সূরত আরো কতো কি!
শহীদুল ইসলাম সোহাগ বর্তমান ইউনিয়ন পরিষদ মেম্বার।আবারো বিজয়ী হবার প্রত্যাশায় মাঠে নেমেছেন পাঁচ বছরে জনগনের পাশে থাকার ফিরিস্তিসমূহের তকমা হাতে নিয়ে।নির্বাচনী প্রতীক তার ফুটবল।মোঃআলফা হোসেন রিপন মল্লিক দীর্ঘদিন মাঠে আছেন।চষে বেড়িয়েছেন মাঠ।শতোভাগ চেষ্টা করছেন নির্বাচনে বিজয়ের হাওয়া পালে লাগাতে।টিউবওয়েল মার্কা নিয়ে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন।
মোঃমনির হোসেন সিকদার তালা চাবি নিয়ে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন।বিজয়ের জন্য প্রত্যাশী সে।দ্বারে দ্বারে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। মোঃমিজানুর রহমান মোরগ প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন।খানা পরিবর্তন করে অন্য ওয়ার্ড থেকে ভোট মাইগ্রেট করে নতুন ভোটার হয়েছেন।বিজয়ের জন্য মরিয়া সেও।
কে জিতবে কে হারবে সকল জল্পনা কল্পনার অবসান হবে ২৮ তারিখে।জনসাধারন তার প্রিয় ব্যাক্তিকে ব্যালটের মাধ্যমেই বরন করে নিবে।শুভকামনা রইলো মির্জাগঞ্জ উপজেলার দেউলী সুবিদখালী ইউনিয়নের এই ভ্যাটিক্যান ভিলেজের সম্ভাব্য মেম্বারকে।তেমনি নির্বাচনের আচারন বিধি লংঘন করে কোনোরকম অতিরঞ্জিত কর্মকান্ডে লিপ্ত হয়ে পরিবেশ বিনষ্টতামূলক দৃষ্টতা থেকে বিরত থেকে শান্তি,সৌহার্দ্য,ভ্রাতৃত্ব ও সহিঞ্চুপূর্ন সম্পর্কের মাধ্যমে ব্যালট পেপারের মাধ্যমেই নির্বাচিত করা হোক ভ্যাটিক্যান ভিলেজের যোগ্য প্রার্থীকে এমন আশাবাদী সকলে।



All Bangla Newspaper
ফেসবুকে আমরা
error: Content is protected !!