শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২, ১১:২৮ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
ঘোষণা :

ধান সংগ্রহে ব্যস্ত শিশুরা,কিনতে হবে শীতের পোশাক !

ইঁদুরের গোলা থেকে ধান সংগ্রহে ব্যস্ত শিশুরা 

খালিদ হোসেন মিলু বদলগাছী(নওগাঁ)প্রতিনিধি::- বদলগাছী উপজেলার বিস্তীর্ণ ফসলের মাঠে ঝরে পড়া ও ইঁদুরের গর্ত থেকে ধান সংগ্রহের আনন্দে মেতেছে হতদরিদ্র শিশুরা। সংগ্রহ করা ধান বিক্রি করেই তারা কিনবে শীতের পোশাক। প্রতি বছর ধান কাটা শেষ হতেই ঝরে পড়া ধান কুড়াতে ব্যস্ত সময় পার করে একদল শিশু-কিশোর। সংগ্রহ করা ধান বিক্রি করেই তারা শার্ট, প্যান্ট, জুতা কিংবা শীতের পোশাক কিনবে।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, বিস্তীর্ণ ফসলের মাঠ থেকে কৃষকরা ধান নিয়ে যাওয়ার পর একদল শিশু-কিশোর হাতে খুন্তি-কোদাল, চালন, ডালা, ব্যাগ নিয়ে খুঁজে ফিরছে ইঁদুরের গর্ত। ইঁদুরের গর্তে জমানো ধান ব্যাগে ভরে তারা। এছাড়া জমিতে পড়ে থাকা ধানও কুড়িয়ে ব্যাগে ভরতে দেখা গেল।
জানা গেছে, চলতি মৌসুমে ধান কাটা ও মাড়াই চলছে। এবার ধানের দাম বেশি পাওয়ায় কৃষকের মুখে হাসি ফুটেছে। এক মণ ধান বাজারে বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার থেকে ১ হাজার ২০০ টাকায়।
ধান সংগ্রহ করা শিশুরা জানায়, মাঠের ধান কৃষকরা কেটে নিয়ে যাওয়ার পর মাটিতে ধানের শীষ পড়ে থাকে। সেগুলো চেলে নেয়া হয়। এছাড়া ইঁদুরের গর্ত খুঁড়লে পাওয়া যায় ধান। প্রতি বছরই ধান সংগ্রহে আনন্দে মেতে ওঠে তারা। ধান বিক্রির টাকা দিয়েই শীতের জ্যাকেট ও জুতা কিনে থাকে।মাঠে ধান সংগ্রহ করতে আসা শিশু রুবেল,রাহিদ, সাইদ রায়হান হোসেন (১০) জানায়, আমরা বিভিন্ন মাঠে ধান সংগ্রহ করে তা বিক্রি করি। সেই টাকা দিয়ে শীতের জ্যাকেট কিনব।
কোলা এলাকার কৃষক মো:রিপন ইসলাম জানান, ধান কাটার পর মাটিতে পড়ে থাকা ধান শিশু-কিশোররা সংগ্রহ করে, এতে আমরা বাধা দেই না। এছাড়া গ্রামের হতদরিদ্র পরিবারের শিশুরাই দল বেঁধে ধান সংগ্রহ করে।
বদলগাছী উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মো:হাসান আলী জানান, খেতে এভাবে ইঁদুরের গর্ত থেকে ধান সংগ্রহ করা নিরাপদ নয়। তবে আধুনিক পদ্ধতিতে কৃষকরা খেতে ধান কাটা ও মাড়াই করলে ধান মাটিতে পড়া এবং ইঁদুর ধান নষ্ট করতে পারবে না। এতে কৃষকরাও উপকৃত হবেন।



All Bangla Newspaper
ফেসবুকে আমরা
error: Content is protected !!